আমাদের জন্য এটা ভীতিকর অভিজ্ঞতা: তামিম

ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের এক মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা। ওই ঘটনাকে ‘ভীতিকর অভিজ্ঞতা’ বলে বর্ণনা করেছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য তামিম ইকবাল।

আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা দেড়টার দিকে জুম্মার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে এক বন্দুকধারী হামলা চালান। মসজিদটি হ্যাগলি ওভাল মাঠের কাছাকাছি হওয়ায় জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা অনুশীলন শেষে সেখানে নামাজ আদায়ের জন্য যাচ্ছিলেন।

ক্রিকেট দলের সদস্যরা মসজিদে প্রবেশের মুহূর্তে সেখানে হামলার ঘটনা ঘটে। একজন প্রত্যক্ষদর্শী হামলা হয়েছে জানিয়ে মসজিদে প্রবেশ করতে ক্রিকেট দলকে নিষেধ করলে খেলোয়াড়রা দ্রুত সেখানে থেকে ফিরে আসেন।

এ ঘটনার পর ক্রিকেটার তামিম ইকবাল টুইটে লেখেন, ‘এটা আমাদের জন্য ভীতিকর অভিজ্ঞতা ছিলো, বন্দুকধারী সেখানে হামলা চালিয়েছিলো। পুরো দল বন্দুকধারীর হামলা থেকে রক্ষা পেয়েছে। এটা ভীতিকর অভিজ্ঞতা। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

বাংলাদেশ দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম টুইটে লেখেসন, ‘আলহামদুল্লিলাহ। ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা থেকে আল্লাহ আমাদের বাঁচিয়েছেন। আমরা খুবই ভাগ্যবান। জীবনে আর এমন ঘটনার দেখতে চাই না। দোয়া করবেন আমাদের জন্য।’

বাংলাদেশ দলের কোচিং স্টাফের একজন মারিও ভিল্লাভারানে বলেন, ‘ক্রিকেটাররা মানসিকভাবে একটু বিপর্যস্ত। আমি তাদের সঙ্গে অল্প কথা-বার্তা বলেছি। তারা ভালো আছেন। তারা গোলাগুলি স্বচক্ষে দেখেননি। তবে গুলির শব্দ শুনেছেন। অনুশীলন শেষ করে মসজিদের পথে তারা তখনই ওই ঘটনা ঘটেছে।’

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের মুখপাত্র জালার ইউসুফ এএফপি’কে জানান, ‘দলের বেশির ভাগ সদস্য মসজিদে যাওয়ার জন্য বাসে চড়েছিলেন। মসজিদে প্রবেশের মুহূর্তে হামলার ঘটনাটি ঘটে। ক্রিকেটাররা নিরাপদে আছে। আমরা তাদের হোটেল থেকে বের হতে নিষেধ করেছি।’

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল মাঠে কাল শনিবার বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ হওয়ার কথা ছিলো। তবে হামলার কারণে ম্যাচটি বাতিল করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, সন্ত্রাসী হামলায় মসজিদে কয়েকজনের প্রাণহানি ঘটেছে। হামলার আশঙ্কায় আরেকটি মসজিদ থেকে মুসল্লিদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।