চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নির্বাচন: সভাপতি গুলজার, মহাসচিব খোকন

বিনোদন ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদে সভাপতি পদে মুশফিকুর রহমান গুলজার ও মহাসচিব পদে বদিউল আলম খোকন নির্বাচিত হয়েছেন। পুনরায় তারা সমিতির দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। আজ শনিবার (২৬ জানুয়ারি) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তাদেরকে বিজয়ী ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার আব্দুল লতিফ বাচ্চু।

১৯ পদের মধ্যে ১৪ টিতে জয় পেয়েছে গুলজার-খোকন প্যানেল। পাঁচটিতে বিজয়ী হয়েছে বাদল-বজলুর প্যানেলের সদস্যরা। সভাপতি নির্বাচিত হলেন গুলজার। আর মহাসচিব নির্বাচিত হলেন খোকন। নির্বাহী সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন ছটকু আহমেদ, কমল সরকার, সোহানুর রহমান সোহান, মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, এম এ আওয়াল, আবদুস সামাদ খোকন, সাঈদুর রহমান সাঈদ, নূর মোহাম্মদ মনি, আবুল খায়ের বুলবুল, ইলিয়াস ভূঁইয়া।

৩৬২ জন সদস্য পরিচালকের মধ্যে ৪৩ জন ছাড়া বাকি সবাই ভোট প্রদান করেন। দুপুরে এক ঘণ্টা মধ্যাহ্নভোজের বিরতি ছাড়া শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া এই ভোট গ্রহণ চলে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। ভোট গ্রহণ শেষে এক ঘণ্টা বিরতির পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার আবদুল লতিফ বাচ্চুর নেতৃত্বে ভোট গণনা শুরু হয়।

এর আগে শুক্রবার (২৫ জানুয়ারি) ঢাকার তেজগাঁওস্থ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসির) পরিচালক সমিতি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় কার্যনির্বাহী পরিষদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। সকাল ৯টায় শুরু হয়ে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। উৎসবমুখর পরিবেশে সবাইকে ভোট দিতে দেখা যায়। সারারাত ভোট গণনা শেষে সকালে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্বপালন করেন আবদুল লতিফ বাচ্চু। দুই সহকারী কমিশনার হিসেবে ছিলেন শফিকুর রহমান ও ডি এইচ নিশান।

এবার ভোটার ছিলেন ৩৬২ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ৩১৯ জন। বাতিল হয়েছে ১৯টি ভোট। মোট বৈধ ভোট গণনা হয়েছে ৩০০টি।

সভাপতি পদে মুশফিকুর রহমান গুলজার পেয়েছেন ১৮৩ ভোট। তার প্রতিদ্বন্দ্বী বাদল খন্দকার পেয়েছেন ১০৯ ভোট।

সহ-সভাপতি পদে মনতাজুর রহমান আকবর ১৬১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। একই পদে তার প্রতিদ্বন্দ্বী শাহ আলম কিরণ পেয়েছেন ১৩১ ভোট।

মহাসচিব পদে লড়েছেন তিনজন। এর মধ্যে বদিউল আলম খোকন ১৫৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী বাদল খন্দকার পেয়েছেন ১০৯ ভোট ও সাফি উদ্দিন সাফি পেয়েছেন ৬৭ ভোট।

উপ-মহাসচিব পদে ১৪৫ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন শাহীন সুমন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী পল্লী মালেক ১৪২ ভোট ও রকিবুল আলম রকিব পেয়েছেন ৫ ভোট।

কোষাধ্যক্ষ পদে মো. সালাহ্উদ্দিন ১৫০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত। তার প্রতিদ্বন্দ্বী সেলিম আজম পেয়েছেন ১৪২ ভোট।

সাংগঠনিক সচিব পদে ১৪১ ভোট পেয়েছে জয়ী হয়েছেন কবিরুল ইসলাম রানা। তার প্রতিদ্বন্দ্বী মোস্তাফিজুর রহমান মহারাজ ৭৮ ও মো. জয়নাল আবেদীন ৭৩ ভোট পেয়েছেন।

আন্তর্জাতিক ও তথ্য প্রযুক্তি সচিব পদে ২৩০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান মানিক। তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিপ্লব শরীফ পেয়েছেন ৬২ ভোট।

সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সচিব পদে শাহীন কবির টুটুল ২০০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়াজেদ আলী বাবলু পেয়েছেন ৯২ ভোট।

প্রচার, প্রকাশনা ও দফতর সচিব পদে ১১৪ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন মো. আনোয়ার সিরাজী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হানিফ আকন দুলাল পেয়েছেন ১২২ ভোট। এছাড়া নির্বাহী সদস্য পদে জয় পেয়েছেন ছটকু আহমেদ (২১৪), কমল সরকার (১৪১), সোহানুর রহমান সোহান (২৪৪), মোস্তাফিজুর রহমান বাবু (১৮১), এম এ আওয়াল (১৭৭), আবদুস সামাদ খোকন (১৮১), সাঈদুর রহমান সাঈদ (১৪২), নূর মোহাম্মদ মণি (১৯৭), আবুল খায়ের বুলবুল (১৭১) ও ইলিয়াস ভূঁইয়া (১৭৫)।

সবচেয়ে কম ভোট পেয়েছেন রকিবুল আলম রকিব (৫)। সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়েছেন সোহানুর রহমান সোহান (২৪৪)।

চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সংগঠনটির ২০১৯-২০ মেয়াদের নির্বাচনে দুইটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। মুশফিকুর রহমান গুলজার-বদিউল আলম খোকন পরিষদের বিপরীতে লড়েছে বাদল খন্দকার-বজলুর রাশেদ চৌধুরী পরিষদ। তবে বেশিরভাগ প্রার্থীই গুলজার-খোকন পরিষদ থেকে জয় পেয়েছেন।

এবার দুই প্যানেল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বর্তমান সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার ও মহাসচিব বদিউল আলম খোকন। অন্য প্যানেল থেকে সভাপতি পদে বাদল খন্দকার এবং মহাসচিব পদে বজলুর রাশেদ চৌধুরী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। পরিচালক সাফিউদ্দিন সাফি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মহাসচিব পদে নির্বাচন করেছেন।