ইউরোপের কোন ক্লাবের কতো আয়?

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
দুই বছর আগেও বিশ্বের সবচেয় ধনী ক্লাব ছিলো ইংলিশ ফুটবল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। কিন্তু দুই বছর বড় কোনো শিরোপা জিততে পারেনি ম্যানইউ। আর তাই তাদের জায়গা দখল করে নিয়েছে স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ।
পরপর তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতায় বেশ ফুলে-ফেঁপে উঠেছে তাদের আয়।

শীর্ষ থাকা ম্যানইউ নেমে গেছে তিনে। আর দুইয়ে উঠেছে রিয়ালের চির প্রতিদ্বন্দ্বী স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। রিয়াল মাদ্রিদ ২০১৪-২০১৫ মৌসুমের পর আবার ধনী ক্লাবের তালিকায় শীর্ষে উঠলো। সেই প্রথম ক্লাব হিসেবে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো আয় করলো তারা।

সেরা দশ ধনী ক্লাবের তালিকায় অবধারিতভাবে আছে ম্যানসিটি, চেলসি, আর্সেনাল, লিভারপুল, পিএসজির নাম। এছাড়া টটেনহ্যাম, বায়ার্ন মিউনিখ আছে শীর্ষ দশে।

রিয়াল মাদ্রিদ ২০১৮ সালে আয় করেছে ৭৫০.৯ মিলিয়ন ইউরো। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বার্সেলোনা আয় করেছে ৬৯০.৪ মিলিয়ন ইউরো। আর তিনে থাকা ম্যানইউ আয় করেছে ৬৬৬ মিলিয়ন ইউরো। পাউন্ডের সঙ্গে ইউরোর মূল্যের তারতম্যের কারণে ম্যানইউয়ের রাজস্ব করেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

আয়ের দিক থেকে তালিকায় চতুর্থ ক্লাব জার্মানির বায়ার্ন মিউনিখ। তারা আয় করেছে ৬২৯.৪ মিলিয়ন ইউরো। ম্যানসিটি গেলো মৌসুমে দুর্দান্তভাবে লিগ জিতলেও ৬০০ মিলিয়ন ইউরোর ঘরে ঢুকতে পারেনি তারা। তাদের আয় হয়েছে ৫৬৮.৪ মিলিয়ন ইউরো। পরের তিন নাম যথাক্রমে পিএসজি, লিভারপুল এবং চেলসি। তাদের আয় যথাক্রমে ৫৪১.৭ মিলিয়ন, ৫১৩.৭ মিলিয়ন এবং ৫০৫.৭ মিলিয়ন ইউরো।

তালিকায় নয়ে ও দশে আছে আরো দুই ইংলিশ ক্লাব আর্সেনাল ও টটেনহ্যাম। নয়ে থাকা আর্সেনাল গেল বছর আয় করেছে ৪৩৯.২ মিলিয়ন ইউরো। আর টটেনহ্যাম ৪২৪. ৩ মিলিয়ন ইউরো। সেরা দশের মধ্যে ছয়টি ক্লাবই ইংলিশ লিগের। তবে সেরা দশে নাম নেই রোনালদোর নতুন ক্লাব জুভেন্টাসের। তারা হয়েছে ১১তম। আর ১২ তে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডু, ১৩ তে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ আছে। ক্লাবগুলোর আয়ের এই তথ্য দিয়েছে আর্থিখ সেবা সংস্থা নামে পরিচিত ‘দেলোত্তি’।