শহীদ মিনারে ইমতিয়াজ বুলবুলের মরদেহ

বিনোদন ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
প্রখ্যাত সংগীত পরিচালক, গীতিকার, সুরকার ও বীরমুক্তিযোদ্ধা আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার (২৩ জানুয়ারি) বেলা পৌনে ১১টায় তার মরদেহ সেখানে নেওয়া হয়। সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য মরদেহ শহীদ মিনারের বেদিতে রাখা হয়েছে।

গুণী এই শিল্পীকে শ্রদ্ধা জানাতে আগে থেকেই নানা পেশার অসংখ্য মানুষ জড়ো হয়েছে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে। ফুল হাতে শ্রদ্ধাতে জানাতে হাজির হয়েছেন এক সময় তার সঙ্গে কাজ করা সঙ্গীত, চলচ্চিত্র অঙ্গনেরও অনেকে।

সেখানে উপস্থিত রয়েছেন আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের ছেলে আসিফ ইমতিয়াজ মুন এবং দুই মেয়ে রোকসানা তানজিম মুকুল ও রোয়েনা হাসান মিতুল।

এছাড়া উপস্থিত রয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, কণ্ঠশিল্পী মনির খান, শফিক তুহিনসহ মুক্তিযোদ্ধারা, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিরা।

মুক্তিযুদ্ধের সময় বুলবুলের সঙ্গে পাক-হানাদার বাহিনীর হাতে আটক হন কাজী জিয়াউল ইসলাম মাহবুব। তিনি বলেন, আমরা একসঙ্গে আটক হয়েছিলাম যুদ্ধের সময়। ও (বুলবুল) মুক্ত হয়েছিলো, আমিও মুক্ত হয়েছিলাম। কিন্তু আমাকে রেখে ও দুনিয়া থেকে মুক্তি নিলো। এটা মেনে নেওয়া বেদনাদায়ক।

সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বুলবুলের মরদেহ দুপুর ১২টা পর্যন্ত শহীদ মিনারে রাখা হবে। দেয়া হবে রাষ্ট্রীয় সম্মান। বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি)। সেখানেও তার জানাজা হবে। এরপর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলকে।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ভোর ৪টার দিকে আফতাবনগরের নিজ বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ৬৩ বছর বয়সী আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল।