আমি ভয় পাচ্ছি: বিমানসহ নিখোঁজ ফুটবলার সালা

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
কার্ডিফ সিটিতে যোগ দিতে ফ্রান্সের নান্তেস থেকে বিমানযোগে ওয়েলেসে যাবার পথে নিখোঁজ হওয়া এমিলিয়ানো সালার ভয়েস রেকর্ড প্রকাশ করা হয়েছে। আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ড নিজের বন্ধুদের হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ভয়েস ম্যাসেজ দিয়েছিলেন। এ সময় তিনি বলছিলেন, ‘আমি ভয় পাচ্ছি’।

২৮ বছর বয়সী এই ফুটবলারের বিমান সোমবার ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যের মাঝখানে থাকা ইংলিশ চ্যানেলের ওপর দিয়ে যাবার সময় সব ধরনের যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে যায়।

এএফসির খবর, শনিবারই ইংলিশ দল কার্ডিফের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন সালা। রেকর্ড ১৭ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে চুক্তি করেন তিনি। ক্লাবে যোগ দিতে ছোট একটি বিমানে যাচ্ছিলেন। কিন্তু গার্নসের দ্বীপের উত্তর প্রান্ত থেকে ২০ কিলোমিটার আগেই র‍্যাডারের সঙ্গে সব যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে যায় সেই বিমানটির।

বন্ধুদের কাছে পাঠিয়েছেন এমন কয়েকটি ভয়েস ম্যাসেজ প্রকাশ করেছে আর্জেন্টাইন গণ্যমাধ্যম ওলে। প্রথমটিতে সালা বলেন, হ্যালো ছোট ভাইরা। কি খবর তোমাদের? ভাইয়েরা, আমি ভীষণ ক্লান্ত। আমি নান্তেসে ছিলাম। এখানে আমান অনেক, অনেক, অনেক কিছু করতে হয়েছে। এগুলা কখনো থামেনি। কখনোই না।

দ্বিতীয় ম্যাসেজে তিনি বলেন, আমি একটি বিমানে রয়েছি। মনে হচ্ছে এটা যেকোনো সময় পড়ে যেতে পারে। আমি কার্ডিফের পথে রয়েছি। গতকাল আমরা শুরু করেছি। বিকালে হয়তো আমার নতুন দলের সঙ্গে ট্রেনিং শুরু করে দিবো।

কিছুক্ষণ পর সব শেষ ম্যাসেজে সালা বলেন, কেমন আছো সবাই? যদি আধাঘণ্টার মধ্যে কোনো সংবাদ না পাও, জানিনা তারা আমাকে খোঁজার জন্য কাউকে পাঠাবে কি না… আমি ভয় পাচ্ছি!

এদিকে যে এলাকায় বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন হয় সেখান থেকে পুলিশ জানিয়েছে, ফ্রান্সের সমুদ্র সীমানার পাশেই এই ব্রিটিশ দ্বীপ গার্নসের। সেখানকার প্রশাসন এরই মধ্যেই লাইফবোট ও হেলিকপ্টার নিয়ে তদন্তে নেমে পড়েছে। কিন্তু এখনো কোনো কিছু খুঁজে পাওয়া যায়নি। বিমানে সালা ও পাইলট দুইজন ছাড়া কেউ ছিলেন না বলে জানা গেছে।

কে এই আর্জেন্টাইন ফুটবলার
বিবিসি বাংলা এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মাত্রই শুরু হয়েছিলো তার ক্যারিয়ার, বয়স ২৮ হলেও, যোগ দিয়েছেন প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব কার্ডিফে। ট্রান্সফার মার্কেটের বাজারদরে খুব বড় ফুটবলার না হলেও শারীরিক সক্ষমতা ও সাহস কোনো ফুটবলারকে বাড়তি সুবিধা দেয় সেটা প্রিমিয়ার লিগে অনেকেই প্রমাণ করেছেন।

এমিলিয়ানো সালা হতে পারতেন তাদের একজন। মাঠে যতটা ডাকাবুকো এই ফুটবলার মাঠের বাইরে শান্ত নীরব। গোয়েন্দা গল্প পছন্দ তার, একটা বই ছাড়া তিনি খুব কমই বের হন। তার জীবন আজ একটি গোয়েন্দা গল্পের মতোই, নিঁখোজ। একজন স্ট্রাইকার, স্থানীয়রা তাকে বলতেন ‘কার্লোস তেভেজ’।

হয়তো প্রিমিয়ার লিগে যোগ দিলে জেমি ভার্দির মতো এক চমক হয়ে উঠতেন তিনি। খোলা জায়গা ও কাউন্টার অ্যাটাক তার পছন্দ। দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলারদের সহজাত ক্ষমতার বাইরে শারীরিক ও সাহসী ফুটবল তার পছন্দ। প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব কার্ডিফ তার জন্য খরচ করেছে ১৭ মিলিয়ন ইউরো।

এই দাম পেতে ঘাম ঝরিয়েছেন সালা। এই শেষ ফরাসী লীগে নতেঁর হয়ে ১৯ ম্যাচে তার গোলসংখ্যা ১২। আর্জেন্টিনার স্যান ফ্র্যান্সিসকোতে অনুশীলন শুরু করে সালা, যেই ট্রেনিং অ্যাকাডেমির সাথে ফরাসী ক্লাব বোর্দোর সংযোগ রয়েছে। সেখান থেকেই বোর্দোর রিজার্ভ দলে যোগ দেন সালা। ২০ বছর বয়সে বোর্দোতে যোগ দিয়েছেন তিনি।

অত:পর শুরু হয় তার ধারে খেলা, অরলেয়ান্সের হয়ে ৩৭ ম্যাচে ১৯ গোল, নিওর্টের হয়ে ৩৭ ম্যাচে ১৮ গোল, কায়েনের হয়ে ১৩ ম্যাচে ৫টি গোল করেন সালা। শেষ পর্যন্ত নতেঁর হয়ে ১১৭ ম্যাচ স্থায়ী হয় ক্যারিয়ার, যেখানে ৪৮ গোল করে নজর কাড়েন তিনি।যারা সালাকে চিনতেন কোনোভাবে তারা তাকে ভালো মানুষ ও ভালো সতীর্থ হিসেবেই চিনতেন।

কীভাবে হারিয়ে গেলেন তিনি?
ফ্রান্সের স্থানীয় সময় সাতটা পনের মিনিটে একটি সিঙ্গের টার্বাইন ইঞ্জিন বিমান সালাকে নিয়ে রওনা করে। প্রায় ৫,০০০ ফিট ওপরে থাকা অবস্থায় এয়ার ট্রাফিক কনট্রোলের সাথে যোগাযোগ করে অবতরণের অনুরোধ করে। ২,৩০০ ফিট ওপরে থাকা অবস্থায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয় বিমানের সঙ্গে, এরপর আর খোঁজ পাওয়া যায়নি বিমানটির। তবে খোঁজ এখনো চলছে। অ্যালডারনির চ্যানেল দ্বীপে সোমবার রাতে বিমানটি হারায়।

পাঁটি বিমান ও দুটি লাইফবোট প্রায় ১,০০০ বর্গ মাইল জায়গা জুড়ে বিমানটির খোঁজ করে। কিন্তু কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

শোকাহত ফুটবল বিশ্ব
প্রিমিয়ার লিগজয়ী কোচ ক্লদিও রানিয়েরি চিলেন সালার সাবেক কোচ।

ফুলহ্যামের বর্তমান কোচ বলেন, সালা ছিলেন যোদ্ধা ও দারুণ চরিত্র তার। পুরো বিশ্ব ফুটবল একটা ইতিবাচক খবরের আশায় থাকবে বলেন তিনি।

এছাড়া কিলিয়ান এমবাপে, থিয়েরি ওরি, গ্যারি লিনেকার ও বিভিন্ন ক্লাব কর্তৃপক্ষ সালার জন্য শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন।