মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫তম জন্মবার্ষিকী আজ

প্রদীপ ঘোষ, যশোর ব্যুরো, পিটিবিনিউজ.কম
“দাড়াও পথিকবর, জন্ম যদি তব বঙ্গে, তিষ্ঠ ক্ষণকাল এ সমাধি স্থলে”….দত্তকুলোদ্ভব কবি মধুসূদন দত্ত। যশোরের সাগরদাঁড়ি কপোতাক্ষ তীরে জন্মভূমি, জন্মদাতা দত্তকূল মহামতি রাজনারায়ণ নামে, জননী জহ্নবী”। মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের আজ মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ১৯৫ তম জন্মবার্ষিকী। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার থেকে কবি সাহিত্যিকদের মিলনমেলা বসছে যশোরের কেশবপুর উপজেলার সাগরদাঁড়িতে।

যশোরের কেশবপুর উপজেলা সদর থেকে ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণে সাগরদাঁড়ি গ্রামে জমিদার রাজনায়ণ দত্ত ও মাতা জাহ্নবী দেবীর সংসারে ১৮২৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন অমিত্রাক্ষর ছন্দের জনক মহাকবি মাইকেল মধুুসুদন দত্ত। নিজ গ্রামে কবির শৈশব কাটে ।উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য তিনি ১৮৩০ সালে সাগরদাঁড়ি ছেড়ে কলকাতার খিদিরপুরে চলে যান। লেখাপড়া করাকালিন তিনি ফ্রান্সের ভার্সায় নগরীতে বসে রচনা করেন চর্তুদশপদী কবিতা ‘সনেট’। লেখাপড়ার কারণে তিনি বিদেশ থাকলেও তার নিজ গ্রাম জন্মভূমি সাগরদাঁড়িকে ভুলে যাননি। ভুলে যাননি তার প্রামের মধ্যে থেকে প্রবাহিত কপোতক্ষ নদকে। তার সাহিত্য কর্ম ও দেশাত্ববোধক চির জাগ্রত রয়েছে মধু মন্ডলে।

১৮৭৩ সালের ২৯ জুন তিনি প্রচন্ড কষ্ট পেয়ে একপ্রকার বিনা চিকিৎসায় ৪৯বছর বয়সে মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্ত মারা যান।

ইতিমধ্যে মেলার সকল প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। ২২ জানুয়ারি থেকে যশোরের কেশবপুর উপজেলার সাগরদাঁড়ীতে শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধু মেলা। বাংলা সাহিত্যে সনেট প্রবর্তক মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৫ তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষ্যে সংস্কৃতিক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় জেলা প্রশাসন এবারো কবির জন্মভুমি সাগরদাঁড়িত সপ্তাহব্যপী মধুমেলার আয়োজন করেছে। মেলাকে ঘিরে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে গোটা সাগরদাঁড়ী। এলাকায় বিরাজ করছে উৎসব মুখর পরিবেশ। বিকাল ৩টায় মেলা উদ্ধোধন করবেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, মধুমেলায় কবির জীবন আদর্শ ও তার সৃষ্টি সম্ভার এবং দেশ প্রেম নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি রয়েছে ভরপুর বিনোদনমূলক ব্যবস্থা। প্রতিদিনকার মধু মঞ্চে দেশ বরেণ্য কবি সাহিত্যিকগণের আলোচনা ও জনপ্রিয় শিল্পীদের নিয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হবে। এছাড়াও রয়েছে কুঠির শিল্পসহ যাত্রা, সার্কাস, মৃত্যুকূপে, নাগরদোলা যাদু ও লাঠি খেলাসহ বিনোদনের নানা আয়োজন। যশোর খুলনা ও সাতক্ষীরাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার কবি ভক্তের আগমণে এবারো মধুমেলা মিলন মেলায় পরিণত হবে বলে আশা করছেন আয়োজক কর্তৃপক্ষ।