ঝিনাইদহে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ও নারী মাদক ব্যবসায়ী আটক

প্রতীকী ছবি।

অরিন্দম রহমান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি, পিটিবিনিউজ.কম
স্বেচ্ছাসেবক লীগ অফিসের মধ্যে বসে ফেন্সিডিল ও ইয়াবা বিক্রির সময় হাতে নাতে আটক হয়েছেন কালীগঞ্জ উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বজলুর রশীদ নান্নু (৫০)। আজ বুধবার (১৫ মে) দুপুরে তাকে ৩০ পিচ ইয়াবা ও পাঁচ বোতল ফেন্সিডিলসহ তাকে আটক করে ঝিনাইদহ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা।

আটককৃত বজলুর রশীদ নান্নু কালীগঞ্জ উপজেলা স্বেচছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি ও ফয়লা বোর্ড স্কুল পাড়ার তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে। একই সময় ওই অফিসের সামনে থেকে সোনিয়া আক্তার আকাশী (২১) নামের অপর এক নারী মাদক ব্যবসায়ীকে ৫০ পিচ ইয়াবাসহ আটক করা হয়। সে মহেশপুর উপজেলার পান্তাপাড়া গ্রামের মতিয়ার রহমানের মেয়ে। বর্তমান সে কালীগঞ্জের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে বসবাস করে।

ঝিনাইদহ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের পরিদর্শক বিশ্বাস মফিজুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা শহরের কালীবাড়ীর কাছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের অফিসে মাদকবিরোধী অভিযান চালান। সে সময় স্বেচ্ছাসেবক লীগ অফিসে বসে মাদক বিক্রির সময় ৩০ পিচ ইয়াবা পাঁচ বোতল ফেন্সিডিলসহ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি বজলুর রশীদ নান্নুকে হাতে নাতে আটক করেন। একই সময় একই অফিসের সামনে থেকে সোনিয়া আক্তার আকাশি নামের এক নারী মাদক ব্যবসায়ীকে ৫০ পিচ ইয়াবাসহ আটক করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মাদকদ্রব্য আইনে পৃথক দুইটি মামলা দেয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, একই অফিসের মধ্যে থেকে ইতিপূর্বেও বজলুর রশীদ নান্নুকে ফেন্সিডিলসহ আটক করা হয়েছিলো। সেই মামলায় জামিনে বেরিয়ে এসে পুনরায় মাদকের ব্যবসা শুরু করেছে। গোপন সংবাদ পেয়ে তাকে ও নারী মাদক ব্যবসায়ী সোনিয়াকে আটক করা হয়েছে।