গর্ভপাতও করিয়েছিলেন তিনবার ধর্ষণের স্বীকার অ্যাশলে জড

বিনোদন ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
জনপ্রিয় হলিউড তারকা অ্যাশলে জড। নারী অধিকার নিয়ে বরাবরই সোচ্চার তিনি। তেমনি সোচ্চার নিজের যৌন নিপীড়নের অভিজ্ঞতা জানাতেও। একাধিক বার তিনি তার জীবনের কালো অধ্যায়ের কথা প্রকাশ্যে এনেছেন। সম্প্রতি বার্ষিক নারী বিষয়ক দশম বৈশ্বিক সম্মেলনে হাজির হয়ে আবার নির্দিধায় জানালেন, জীবনে তিনবার তিনি ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। যার কারণে একবার তাকে গর্ভপাতও করাতে হয়েছিলো।

তবে নারী বিষয়ক ওই সম্মেলনে এ নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় অ্যাশলে জডকে। সম্মেলনে উপস্থিত দর্শক সারি থেকে অভিনেত্রীকে প্রশ্ন করা হয়, কেনো তিনি তার সন্তানকে পৃথিবীর আলো দেখাতে চাননি। জবাবে জড বলেন, ‘ধর্ষক ছিলো কেন্টাকির বাসিন্দা। আমি তখন টেনেসিতে থাকতাম। কেন্টাকি ও টেনেসির আইন অনুযায়ী আমাকে ওই ধর্ষকের সঙ্গে সন্তানের অভিভাবকত্ব ভাগ করতে হতো। তাই ওই সময় গর্ভপাতের সিদ্ধান্তই সঠিক ছিলো।’

এই অ্যাশলে জডই ২০১৭ সালে হলিউডের নামকরা প্রযোজক হার্ভে ওয়েনস্টিনের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তুলে তোলপাড় সৃষ্টি করেছিলেন। জানিয়েছিলেন, ‘কিস দ্য গার্লস’ ছবির শুটিং সেটে হার্ভে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিলেন। জডের এই অভিযোগের পরেই অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, গিনেথ প্যালট্রো, আসিয়া আর্জেন্তো ও মডেল নাতাশিয়া মালথের মতো তারকারা মুখ খুলেছিলেন হার্ভের বিরুদ্ধে। শুরু হয়েছিল #মিটু আন্দোলন। এছাড়া কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি ঠেকাতে ও নারী-পুরুষের বৈষম্য দূর করতে ২০১৮ সালে ‘গোল্ডেন গ্লোব’ অনুষ্ঠানে আলো রঙের পোশাক পরে হাজির হয়েছিলেন অ্যাশলে জড। ওই সময় তার সঙ্গে যোগ দিয়েছিলেন রিজ উইদারস্পুন, ইভা লঙ্গোরিয়া ও সালমা হায়েকসহ অনেক হলিউড তারকা।

১৯৯১ সালে অভিনয়ে আসা অ্যাশলে জড যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় টিভি সিরিজ ‘মিসিং’ এবং ‘কিস দ্য গার্লস’ ও ‘ফ্রিদা’ ছবি দুটি দিয়ে নাম কামান। দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে শক্ত করেছেন নিজের অবস্থান। গত জানুয়ারিতে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘আ ডগস ওয়ে হোম’ ছবিতেও তাকে দেখা গেছে। পাশাপাশি রাজনীতিতেও তিনি সক্রিয়। ২০০৯ সালে আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নির্বাচনী প্রচারে তাকে দেখা গিয়েছিলো।