বাগেরহাটের যে নারী পুরুষ ফুটবল দলের কোচ

ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের ঢাকা সিটি এফসির কোচ হয়েছেন বাগেরহাটে জন্ম নেওয়া সাবেক নারী ফুটবলার মিরোনা খাতুন। বাংলাদেশে এই প্রথম কোনো পুরুষ ফুটবল দলের কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন কোনো নারী।

ঢাকা সিটি এফসি চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের একটি নতুন ক্লাব যেটি নৌবাহিনীর সহযোগিতায় গড়ে উঠেছে। মূলত তার এএফসি কোচিং লাইসেন্সের কারণেই চাকরিটা পাওয়া।

ঢাকা সিটি এফসির প্রধান কোচ আবু নোমান নান্নু সি লাইসেন্সধারী। কিন্তু চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে শর্ত ন্যুনতম এএফসির বি লাইসেন্সধারী হতে হবে। ২০১৮ সালের ২৪ ডিসেম্বর থেকেই নিয়মিত অনুশীলন করান মিরোনা।

এ প্রসঙ্গে মিনারা খাতুন বলেন, ‘আমি ডিসেম্বর মাসের ২৪ তারিখ এফসিতে যোগ দিই। আমি যখন কোচ হওয়ার বিষয়টি জানতে পারি আমি খুবই অবাক হই, কখনো ভাবিনি এমন হবে!’

নিজের কোচিং ক্যারিয়ারের পেছনে বাংলাদেশের মেয়েদের ফুটবলের উন্নতিকে মূলমন্ত্র ভাবেন মিরোনা।

তিনি বলেন, ‘আসলে আমরা খেলাধুলায় মেয়েরা এখন অনেক এগিয়ে, কোচিংয়ে মেয়েরা আসছি আমরা, আমার কোনো বাধ্যবাধকতা নেই, কোনো সংকোচ নেই।’

ছেলেদের দলে কোচিং করানোতে দলের ফুটবলারদের প্রতিক্রিয়া কেমন জানতে চাওয়া হয় তার কাছে।

তিনি বলেন, ‘এখানে আমাকে নিয়োগ দিয়েছেন ক্লাব কর্তারা ও নৌবাহিনীর কর্তারা, তাই এখানে আমি সম্পূর্ণ স্বাধীন এবং ছেলেরা আমাকে খুব সম্মান করে।’

মিরোনা খাতুনের দাবি নারী ফুটবলের উন্নতির কারণেই তিনি কোচিংয়ে যোগ দিতে পেরেছেন। তার আশা চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ থেকে উত্তীর্ণ হয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে কোচিং করানো। বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে জয় দিয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে দলকে খেলাতে চান মিরোনা খাতুন।

মিরোনা ২০০৯ সালে প্রথম ফুটবল খেলেন, এরপর অ্যাথলেটিক্সেও সফলতা পান তিনি। জাতীয় প্রতিযোগিতায় ১৩টি স্বর্ণপদক জিতেছেন বাগেরহাট থেকে উঠে আসা মিরোনা।

সূত্র- বিবিসি বাংলা