‘সংলাপের উদ্যোগ ইতিবাচক, আমন্ত্রণ পেলে যাবো’

ফাইল ছবি

নিউজ ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেওয়া সংলাপের উদ্যোগকে ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে মন্তব্য করেছেন। সেই সঙ্গে আমন্ত্রণ পেলে সবদিক বিবেচনা করে সংলাপে যোগ দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করছেন তিনি।

গতকাল রোববার সংবাদ সংস্থা ইউএনবিকে  ড. কামাল বলেন, ‘আরেকটি বিশ্বাসযোগ্য নতুন নির্বাচনের কার্যকর পথ খুঁজে বের করতে আমি সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলাম। এখন প্রধানমন্ত্রী নিজেই সংলাপের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমি এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করি এবং নিশ্চিতভাবেই এটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।’

ড. কামাল আরো বলেন, সংলাপে বসার জন্য আমন্ত্রণ পেলে জোট নেতারা একত্রে বসবেন এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে কী নিয়ে আলোচনা করা যায় তা ঠিক করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপ হলে দেশের জনগণের পক্ষে একটি ইতিবাচক ফল আসবে বলেও আশা প্রকাশ করেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল।

অন্যদিকে বিবিসি বাংলাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ড. কামাল বলেন, কী বিষয়ে সংলাপ তা দেখে তারা অংশগ্রহণ করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন।

ড. কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রী সবাইকে ডাকবেন সংলাপে, একটু তো ইঙ্গিত থাকবে কী কী বিষয় নিয়ে এই সংলাপ। যদি সেটা আমাদের কাছে বিবেচনাযোগ্য হয়, তখন আমরা কমিটিতে সিদ্ধান্ত এ ব্যাপারে নেবো।

প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সংলাপের আমন্ত্রণ এলে তাতে সাড়া দেবেন কি-না, এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘নীতিগতভাবে আমি একে একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে বিবেচনা করবো। কিন্তু জানতে হবে কী প্রেক্ষাপটে এটার আয়োজন করা হচ্ছে, কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে।’ যদি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে যোগ দেন, সেখানে কী জানাবেন তাকে? এ প্রশ্নের উত্তরে ড. কামাল বলেন, সেখানে অবশ্যই নির্বাচনের ব্যাপারে কথা হবে।

ড. কামাল বলেন, ‘সংলাপের প্রস্তাব এলে প্রথমে আমরা জানতে চাইবো যে কী বিষয় নিয়ে হবে। তারপর আমাদের কমিটির বৈঠক হবে। সেখানে বসে আমরা আলোচনা করে সুচিন্তিত উত্তর দেবো। সংলাপে যোগ দেয়া বা না দেয়ার সিদ্ধান্তটি আমরা প্রথমে নিজ দল গণফোরাম থেকেই নেবো।’

বিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, নির্বাচনের আগের অবস্থার সঙ্গে এখনকার অবস্থার একটা পার্থক্য রয়েছে। কাজেই যে কোনো প্রস্তাবের ব্যাপারে এখন নতুন করে চিন্তা করতে হবে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের চেয়ে এখন তিনি গণফোরামকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন কি-না, এ প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, ‘এটা তো সবসময় দিতে হয়। নিজের পার্টিকে গুরুত্ব দিয়ে তার পর তো ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপি সংলাপে না গেলে গণফোরাম অংশ নেবে কি-না জানতে চাইলে ড. কামাল বলেন, এটা অনুমান করা একদম উচিত নয়। এটা যখন ঘটবে তখন আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো।’
সূত্র- সমকাল