ভরতনাট্যমে প্রান্তিকের মঞ্চপ্রবেশ সন্ধ্যায়

বিনোদন ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
‘আরেঙ্গত্রাম’ বাংলায় যাকে বলা হয় মঞ্চপ্রবেশ। ভরতনাট্যমে যারা গুরুর কাছে প্রথাগত শাস্ত্রীয় নৃত্য শেখে, তাদের মধ্যে গুরু যাকে সম্পুর্ণ যোগ্য মনে করেন, তাকে পুর্ণাঙ্গ একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গুরুই মঞ্চে প্রবেশ করান। সেই শিষ্য নিজ গুরু এবং অন্য গুরুদের আশীর্বাদ নিয়ে শুরু করেন একক পরিবেশনা।এ ধরনেরই একটি আয়োজন শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) ছায়ানট মিলনায়তনে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়।

আয়োজক ‘সৃষ্টি কালচারাল সেন্টার’। নৃত্যগুরু আনিসুল ইসলাম হিরু’র শিষ্য প্রান্তিক দেব’র একক ভরতনাট্যম পরিবেশনা। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ছাত্র প্রান্তিক দেব ২০১৪ থেকে ভরতনাট্যম শিখছেন আনিসুল ইসলাম হিরু’র কাছে। পাশাপাশি বিশেষ কোর্স করেছেন ভারতের লীলা স্যামসন, সি ভি চন্দ্রশেখর ও রাজদ্বীপ ব্যানার্জীর কাছে। বাংলাদেশে ছাড়াও যৌথভাবে অনুষ্ঠান করেছেন ভারত, নেপাল, রাশিয়া, চীন, থাইল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কায়।

শুক্রবারের আরেঙ্গত্রাম অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে নৃত্যগুরু আনিসুল ইসলাম হিরু জানান, এবছর সৃষ্টি কালচারাল সেন্টারের ২৫ বছর পুর্তি। এ উপলক্ষে সারা বছরব্যাপী আমরা বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করছি। তারই ধারাবাহিকতায় ১১ জানুয়ারি ছায়ানট মিলনায়তনে প্রান্তিকের আরেঙ্গত্রাম বা মঞ্চপ্রবেশ। প্রান্তিক আমার ভীষণ প্রিয় একজন ছাত্র। নাচের প্রতি সে নিজেকে পুরোপুরি উৎসর্গ করেছে। আমার বিশ্বাস প্রান্তিক বাংলাদেশে অনেক বড় মাপের একজন ভরতনাট্যম শিল্পী হবে।

এক ঘন্টাব্যাপী অনুষ্ঠানে পুষ্পাঞ্জলী, আলারিপু, জাতিস্মরম, শাব্দাম, কীর্ত্তনম, অষ্টপদী ও ইল্লানা শিরোনামে মোট ৭টি ভরতনাট্যম পরিবেশন করবেন প্রান্তিক।