নির্বাচনের ফল বাতিলের দাবিতে বামজোটের অবস্থান কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম
গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফল বাতিলের দাবিতে মুখে কালো কাপড় বেঁধে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। আজ বৃহস্পতিবার (৩ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১১টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তারা নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নতুন করে নির্বাচনেরও দাবি জানান। সারাদেশেও একই কর্মসূচি পালন করছে বাম জোট।

ঢাকায় কর্মসূচি পালনের পর দুপুর ১২টার দিকে বাম গণতান্ত্রিক জোটের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পড়েন সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স। তিনি বলেন, গোটা দেশকে অবরুদ্ধ করে কোটি কোটি ভোটারের ভোটাধিকার হরণ করে আরো একবার জবরদস্তিমূলক প্রহসনের নির্বাচন মঞ্চস্থ করা হল। বাম গণতান্ত্রিক জোট এ নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছে।

প্রিন্স অভিযোগ করেন, নির্বাচনের আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে রাখা হয়েছে। নিরাপত্তার নামে ভয়ভীতি ও আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ‘ন্যাক্কারজনক’ ভূমিকা, বাম জোটসহ বিরোধীদলগুলোর প্রার্থী ও এজেন্টদের আটক, শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত, কেন্দ্র থেকে জোর করে বের করে দিয়ে দেশবাসীকে ভোটাধিকার প্রয়োগ থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে।

প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনী ব্যবস্থা ভেঙ্গে দিয়ে সরকারের ছকে নির্বাচন বাস্তবায়ন করা হয়েছে অভিযোগ করে রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, ভোর থেকেই দেশব্যাপী ভোট কেন্দ্র দখল, প্রকাশ্য জালিয়াতি, ব্যালট পেপার প্রকাশ্য নৌকা মার্কায় সিল মারতে বাধ্য করা হয়েছে। এসব কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে নির্বাচনকে অর্থহীন ও হাস্যকর করে তোলা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

দলীয় সরকারের অধীনে দেশে কোনো নিরপেক্ষ হবে না বলে এই নির্বাচন প্রমাণ করেছে বলে দাবি করেন সিপিবির এ নেতা।

এই অবস্থায় এ নির্বাচনের ফল বাতিল করে অবাধ-নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য নিরপেক্ষ তদারক সরকার গঠন, নির্বাচনের অর্থ-পেশীশক্তি-প্রশাসনিক কারসাজি সাম্প্রদায়িকতার ব্যবহার নিষিদ্ধ করে ‘সংখ্যানুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থা’ চালুসহ নির্বাচনী ব্যবস্থার আমূল সংস্কারের দাবি জানিয়েছে বাম জোট।

নির্বাচনে ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে নারী ধর্ষণ, নির্বাচনী সংবাদ প্রকাশের জের ধরে সাংবাদিককে গ্রেপ্তারের নিন্দা জানানো হয়।

অবস্থান কর্মসূচি থেকে জানানো হয়, আগামী ১১ জানুয়ারি জাতীয় প্রেসক্লাবে নির্বাচনে জোটের ১৩১ জন প্রার্থীকে নিয়ে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেন সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জমান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, ইউনাইটেড কমউনিস্ট লীগের নেতা মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদ নেতা বজলুর রশিদ ফিরোজ, রাজেকুজ্জামান রতনসহ বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্যান্য নেতারা।