সাফারি পার্কের চিতাবাঘ লাপাত্তা, নববর্ষের উৎসবে আতঙ্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
বছরের প্রথম দিনে অনেকেই ভারতের শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্কে বন্য জীব-জন্তু দেখতে এবং আনন্দ উৎযাপন করতে এসেছিলেন। কিন্তু এনক্লোজার থেকে একটি চিতাবাঘ পালানোর খবর শুনে মুহূর্তেই সেই আনন্দ আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। সেই সঙ্গে শিলিগুড়ি এবং তার আশপাশের এলাকার লোকজনও ভীত হয়ে পড়েছেন।

জানা যায়, প্রতি দিন সকাল ১০টায় পার্কটি খোলার আগে একটি রুটিন পরিদর্শন করেন বনকর্মীরা। তবে আজ মঙ্গলবার সকালে নিয়মমাফিক পরিদর্শনের সময় পার্কের এনক্লোজারে শচীন নামের একটি পূর্ণবয়স্ক পুরুষ চিতাবাঘকে খুঁজে পাননি তারা। এদিকে পার্কের বাইরে দর্শণার্থীদের জন্য টিকিট বিক্রি চলছিলো। বছরের প্রথম দিন হওয়ায় দর্শনার্থীদের ভিড়ও বাড়ছিলো। কিন্তু চিতাবাঘটি খুঁজে না পাওয়ায় দর্শণার্থীদের জন্য পার্কের দরজা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় বন দফতর। যদিও বন দফতর বা পার্ক কর্তৃপক্ষ— কোনো পক্ষই এ নিয়ে সরকারি ঘোষণা করেননি।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত চিতাবাঘটির খোঁজ পাওয়া যায়নি। চিতাবাঘটি পার্কের ভেতরে লুকিয়ে রয়েছে, নাকি পার্ক সংলগ্ন কোনো জঙ্গলে চলে গিয়েছে, তা এখনো জানতে পারেননি বন বিভাগের কর্মীরা। এমনিতে পার্কের দেওয়াল যথেষ্ট উঁচু। সেটা টপকিয়ে চিতাবাঘটি কীভাবে পালালো সেটাও বুঝতে পারছে না পার্ক কর্তৃপক্ষ।

চিতাবাঘের খোঁজ না পাওয়ায় দুটি সম্ভাবনার কথা বলছেন বন দফতরের কর্মকর্তারা। কেউ কেউ বলছেন, পার্কের সামনে থাকা উঁচু গাছের ডালে উঠে দেওয়াল টপকিয়ে পার্কের বাইরে যেতে পারে চিতাটি। আবার কেউ কেউ ধারণা করছেন, বর্ষবরণের রাতে শিলিগুড়িতে প্রচুর বাজি ফোটানো হয়েছে। হয়তো সেই আওয়াজে ভয় পেয়ে পার্কের কোথাও লুকিয়ে ছিলো চিতাবাঘটি। পরে পালিয়ে জঙ্গলে চলে গেছে। বন বিভাগ যাই বলুক, যতোক্ষণ পর্যন্ত না চিতাবাঘটি ধরা পড়ছে আতঙ্ক কাটছে না শিলিগুড়িবাসীর। সূত্র: আনন্দবাজার