পাবনায় হামলা থেকে বাঁচতে থানায় আশ্রয় নিলেন ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী সাইয়িদ

পাবনা সংবাদদাতা, পিটিবিনিউজ.কম
পাবনা-১ (সাঁথিয়া-বেড়া আংশিক) আসনে ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের গাড়ি বহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় আবু সাইয়িদকে বহনকারী গাড়িসহ দুটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এই হামলায় অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে সাঁথিয়া পৌরসদরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তপন হায়দার সানের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- জাকির হোসেন, মনোয়ার পারভেজ মানিক, নজমুল হোসেন, আজাদ ও সাইফুল ইসলাম।

পুলিশ জানায়, আজ বেলা ১১টার দিকে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর জন্য তার বেড়াস্থ বাসা থেকে বের হন। সাড়ে ১১ টার দিকে সাঁথিয়া পৌরসদরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তপন হায়দার সানের বাড়ির সামনে ( শিমুলতলা মোড়) পৌঁছালে একদল দুর্বৃত্ত তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এ সময় অবস্থা বেগতিক দেখে আবু সাইয়িদ সাঁথিয়া থানায় গিয়ে আশ্রয় নেন। পরে আবু সাইয়িদ থানা পুলিশ ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের কাছে মৌখিকভাবে অভিযোগ করে তার নির্ধারিত প্রচারসভায় যোগদান করেন। এরপর বেলা ৩টার দিকে সাঁথিয়া উপজেলার জোড়গাছা বাজারে আবার তার গাড়িতে হামলা চালানো হয়। তবে এ ঘটনায় কেউ আহত হয়নি।

এ বিষয়ে বেড়া সার্কেলের এএসপি জিহাদুল রহমান জানান, ধানের শীষের প্রার্থীর গাড়িতে যারাই হামলা করুক তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আবু সাইয়িদ এসেছিলেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছি। পরে আমার নিকট তার গন্তেব্যে যাওয়ার জন্য সহায়তা চাইলে আমি তাকে পৌঁছে দিয়েছি।

এ বিষয়ে ধানের শীষের প্রার্থী আবু সাইয়িদ জানান, বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে সাঁথিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তপন হায়দার সানের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার গাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তার বহরের দুইটি গাড়ি ভাঙচুর ও তিনটি মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের মাঠে লেবেল প্লেইং ফিল্ড নিশ্চিতের দাবি জানান তিনি।