ম্যানইউতে মরিনহোর পরিবর্তে জিদান?

ফাইল ছবি

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
হোসে মরিনহো মেধাবী কোচ, সে কারণেই ইউরোপের সেরা ক্লাবগুলোতে কোচিংয়ের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। কিন্তু একরোখা স্বভাবের কারণে তিনি এক ক্লাবে বেশিদিন থাকতে পারেন না। এরার বোধহয় ম্যানইউতেও তিনের চক্কর কাটানো হচ্ছে না মরিনহোর?

সেই কবে ইন্টার মিলানে সাফল্যভরা তিন মৌসুম কাটিয়ে এসেছিলেন। এরপর থেকেই আর কোনো ক্লাবে তিন মৌসুমের বেশি থাকতে পারছেন না। রিয়াল মাদ্রিদ ও চেলসির পর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে এসেছেন। এবারই তৃতীয় মৌসুম কাটাচ্ছেন ওল্ড ট্রাফোর্ডে। গুঞ্জন যদি সত্যি হয়ে থাকে, তবে চেলসির পর ইউনাইটেডেও তিন মৌসুম কাটানোর সুযোগ পাচ্ছেন না হোসে মরিনহো।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে শুরুটা জঘন্য হয়েছে ইউনাইটেডের। ৭ ম্যাচ শেষে মাত্র ১০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের দশে আছে তারা। এর বাইরে স্কোয়াডের খেলোয়াড়দের সঙ্গে মরিনহোর মনোমালিন্য মিলিয়ে ইউনাইটেডে মরিনহোর দিন ঘনিয়ে আসছে বলেই ভাবছেন অনেকে। এর মাঝেই আবার জিনেদিন জিদানকে নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। মৌসুম শুরু হওয়ার আগে সবাইকে চমকে দিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছেন এই কিংবদন্তি। কদিন আগে আবার জানিয়েছেন, খুব শিগগির কোচিংয়ে ফিরবেন তিনি। দুইয়ে দুইয়ে চার মেলাতে আর কারো বাকি নেই।

টকস্পোর্টসের সঞ্চালক ও টাইমস পত্রিকার কলামিস্ট টনি কাসারিনো অবশ্য যোগ মেলাতে যাননি। ওয়েস্ট হামের কাছে ইউনাইটেডের ৩-১ গোলের হারের পর সাবেক চেলসি খেলোয়াড় দাবি করেছেন, জিদানকে শিগগিরই রেড ডেভিলদের ডাগ আউটে দেখা যেতে পারে, ‘আমি এক কোচকে দেখছি যে খেলোয়াড়দের কাছ থেকে খুবই কম সাহায্য পাচ্ছে। দল যা খেলছে, এর পেছনে তাঁর দায় আছে। আমি ওদের শক্তি ও উৎসাহে ঘাটতি দেখছি। যদি নির্মম সত্য বলি, খুব দ্রুত বিদায় নেবে মরিনহো।

টনি কাসারিনো বলেন, ‘আমার ধারণা, এর মধ্যেই কথাবার্তা হয়ে গেছে। আমাকে একটি সূত্র জানিয়েছে, জিনেদিন এরই মাঝে ইউনাইটেডের সঙ্গে কথা বলেছেন। এ সূত্র অনেক বছর ধরেই আমাকে অনেক তথ্য জানিয়েছে, যা সব সময় সত্য প্রমাণিত হয়েছে।’

কাসারিনোর দাবি, মৌসুম মাত্র শুরু হলেও এখনই কোচ বদলানো দরকার ইউনাইটেডের, ‘আমার ধারণা, এটা হবে (জিদান দায়িত্ব নেবেন) এবং এটা হবে, কারণ ইউনাইটেড এখন লিগে দশে আছে। হ্যাঁ, মাত্র সাত ম্যাচ শেষ হয়েছে। কিন্তু ইউনাইটেড এখন পর্যন্ত যে ফুটবল দেখিয়েছে তা জঘন্য।’

ইউনাইটেডের দলবদল নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কাসারিনো। এক সময় টেকনিকে দুর্দান্ত খেলোয়াড় না হলে ইউনাইটেডে সুযোগ মিলত না কারো। এখন গায়েগতরে শক্তিশালী খেলোয়াড়েই নজর তাদের, ‘আমি ইউনাইটেডে খেলার যোগ্য ছিলাম না, কখনোই না। এই ক্লাবের একটা মান ছিলো তখন। কিন্তু বর্তমানে আমি অবশ্যই খেলতে পারতাম।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.