ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্প-সুনামিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
ইন্দোনেশিয়ায় গতকাল শুক্রবার সংঘটিত ৭ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প ও এর ফলে সৃষ্ট সুনামিতে অন্তত ৩৮৪ জন নিহত হয়েছে। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

গতকাল শুক্রবার দেশটির সুলাওয়েসি দ্বীপের পালু শহরে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর প্রায় সাত ফুট উচ্চতার ওই সুনামি হয়। বার্তা সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে, নিহত মানুষের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) বলছে, গতকাল স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছয়টার আগে ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিলো ভূপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে। এই ঘটনায় তাৎক্ষণিক সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছিলো। অবশ্য ঘণ্টাখানেকের মধ্যে তা তুলে নেওয়া হয়।

বিবিসি ইন্দোনেশিয়ার এক মন্ত্রীর বরাত দিয়ে বলছে, ভূমিকম্প ও সুনামিতে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের যোগাযোগব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। এতে উদ্ধার তৎপরতায় বিঘ্ন ঘটছে। এছাড়া পালু বিমানবন্দরের রানওয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয় বলে ওই মন্ত্রী জানান।

ভূমিকম্প ও সুনামির ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওতে বেশ কিছু ভবন, ঘরবাড়ি ও একটি মসজিদ বিধ্বস্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

পালুতে থাকা বার্তা সংস্থা এএফপির একজন আলোকচিত্রী বলছেন, ঠিক ভূমিকম্পের কারণে নাকি সুনামির আঘাতে এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে, তা এখনো স্পষ্ট করে বলা সম্ভব হয়নি। তাঁর দাবি, নিহত মানুষের সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে।

গত মাসে ইন্দোনেশিয়ার লমবক দ্বীপে সিরিজ ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে ৫ আগস্টের ভূমিকম্পের ঘটনায় দেশটিতে ৪৬০ জনের বেশি মানুষ মারা যায়। ভূমিকম্পপ্রবণ এই দেশে ২০০৪ সালে ঘটে ভয়াবহ সুনামির ঘটনা। সুমাত্রায় ঘটে যাওয়া ওই দুর্যোগে অন্তত ২ লাখ ২৬ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ১ লাখ ২০ হাজারেরও বেশি ছিল ইন্দোনেশীয় নাগরিক।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.