ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড় মদ্রিচ

স্পোর্টস ডেস্ক, পিটিবিনিউজ.কম
ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারটা কয়েক বছর ধরেই শুধু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও লিওনেল মেসির মধ্যে হাতবদল হচ্ছিলো। এবার সেই চক্র ভেঙেছেন রাশিয়া বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলে ক্রোয়েশিয়াকে ফাইলনালে তোলা লুকা মদ্রিচ।

ক্যারিয়ারে এই প্রথমবারের মতো বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জিতলেন ক্রোয়াট এই মিডফিল্ডার। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ও বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক হিসেবে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে তিনি ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার জিতলেন। ফুটবলের এই বিশ্ব সেরা পুরস্কার জিততে টানা দুবারের বিজয়ী ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও লিভারপুলের হয়ে অভিষেক মৌসুমে আলো ছড়ানো মোহামেদ সালাহকে হারিয়েছেন।

গতকাল সোমবার লন্ডনে ‘দ্য বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ড’ অনুষ্ঠানে এ বছরের সেরা ফুটবলার হিসেবে মদ্রিচের নাম ঘোষণা করা হয়। আর এর মধ্য দিয়ে ১০ বছর পর লিওনেল মেসি ও রোনালদোর বাইরে অন্য কেউ বর্ষসেরার কোনো পুরস্কার জিতলো। গত এক দশকে ফিফার বর্ষসেরা অথবা ব্যালন ডি’অর- সব জেতেন দুই তারকার যে কোনো একজন।

গত মাসের শেষ দিকে রোনালদো ও সালাহকে হারিয়েই উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হন মদ্রিচ। এরপর তার ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থার বর্ষসেরা খেলোয়াড় হওয়াটা অনেকটা প্রত্যাশিতই ছিলো। ইতিহাসের প্রথম ক্লাব হিসেবে রিয়ালের টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিলো মদ্রিচের। মাদ্রিদের ক্লাবটির হয়ে গত মৌসুমে উয়েফা সুপার কাপ, স্প্যানিশ সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ শিরোপাও জিতেন তিনি।

আর রাশিয়া বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে তুলতে বড় অবদান রাখেন মদ্রিচ। টুর্নামেন্ট জুড়ে ধারাবাহিকভাবে দারুণ খেলেন তিনি, দুটি গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদের দিয়ে করান একটি গোল। সেই সঙ্গে জেতেন আসরের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার ‘গোল্ডেন বল’।

জাতীয় দলের কোচ, অধিনায়ক, বিশ্বজুড়ে ফিফা নির্বাচিত সাংবাদিক ও ফিফা ডটকমে নিবন্ধন করা ফুটবলপ্রেমীদের ভোটে বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করা হয়। ফিফার বর্ষসেরা ও ফ্রান্স ফুটবল সাময়িকীর ব্যালন ডি’অর পুরস্কার শুরুতে আলাদাভাবে দেয়া হতো। পরে ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ছয় বছর দুটি পুরস্কার একীভূত হয়। তবে ২০১৬ সাল থেকে আবার আলাদাভাবে দেয়া হচ্ছে পুরস্কার দুটি।

বর্ষসেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার পেয়েছেন রাশিয়া বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেলা বেলজিয়ামের থিবো কোর্তোয়া। অগাস্টে চেলসি ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন ২৬ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়।

বর্ষসেরা নারী ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন মার্তা। এ নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো বছরের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হলেন ৩২ বছর বয়সী এই ব্রাজিলিয়ান। এর আগে ২০০৬-২০১০, টানা পাঁচবার পুরস্কারটি জিতেছিলেন তিনি।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.