২৬ ঘণ্টা পর বগুড়া-লালমনিরহাট পথে ট্রেন চলাচল শুরু

ফাইল ছবি

বগুড়া সংবাদদাতা, পিটিবিনিউজ.কম
সেতু দেবে গিয়ে বগুড়া-লালমনিরহাট পথে প্রায় ২৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর বগুড়ার চকচকিয়া সেতু দিয়ে দিয়ে আবারো ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত রেল সেতুর মেরামত কাজ সম্পন্ন হওয়ায় রোববার দুপুর দেড়টা থেকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

রেলওয়ের গাইবান্ধার বামনডাঙ্গা কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী (ওয়ে) আফজাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দেবে যাওয়া সেতুর পিলারের নিচে শনিবার সন্ধ্যা থেকে লোহার ক্লিপ এবং বালু ফেলার কাজ শুরু করা হয় এবং রাতভর কাজ চলে। রোববার সকালে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক এবং প্রধান প্রকৌশলীসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা মেরামত কাজ তদারকি করেন।

উপ-সহকারী প্রকৌশলী আফজাল হোসেন ধারণা রোববার দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে বলেছিলেন সন্ধ্যা নাগাদ মেরামত কাজ শেষ হবে। তবে তার আগেই কাজ শেষ করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সবার সম্মিলিত চেষ্টায় মেরামত কাজ দ্রুত শেষ করা সম্ভব হয়েছে। এরপর দুপুর ১ টা ৩৫ মিনিটে ওই সেতুর ওপর দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

বগুড়া রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার বেঞ্জুরুল ইসলাম জানান, রেল চলাচল শুরু হওয়ার পর দিনাজপুর থেকে ছেড়ে আসা সান্তাহারগামী আন্তঃনগর দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস দুপুর ২টা ৩৫ মিনিটে বগুড়া স্টেশনে পৌঁছে। নির্ধারিত সময়ের যাত্রা বিরতি শেষে আবার গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

এর আগে শনিবার সকালে বগুড়া জেলা শহর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার উত্তরপূর্বে সুখানপুকুর ও ভেলুরপাড়া রেলস্টেশনের মাঝে চকচকিয়া রেল সেতুর একটি পিলার দেবে যায়। রেললাইন তদারকিতে নিয়োজিত কর্মীরা বিষয়টি জানার পর ওইদিন সকাল সাড়ে ১১টা থেকে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

বগুড়ার ওপর দিয়ে ঢাকা, রংপুর, দিনাজপুর, লালমনিরহাট এবং গাইবান্ধার বোনারপাড়া রুটে চব্বিশ ঘণ্টায় ১৬টি ট্রেন চলাচল করে। শনিবার সকালে সেতু দেবে যাওয়ার পর একে একে কয়েকটি ট্রেন আটকে পড়ে। এর মধ্যে আন্তঃনগর দুটি ট্রেনকে ওইদিন দুপুরে বিকল্প পথে চলাচলের নির্দেশ দেয়া হয়। তবে লোকাল এবং মেইল ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.