রাঙামাটিতে দুই ইউপিডিএফ কর্মীকে গুলি করে হত্যা

ফাইল ছবি।

রাঙামাটি সংবাদদাতা, পিটিবিনিউজ.কম
রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় পাহাড়ি সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) দুই কর্মীকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার সাবেক্ষং ইউনিয়নের রামসুপারিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- আকর্ষণ চাকমা (৪২) ওই এলাকার যুদ্ধ মোহন চাকমার ছেলে। আর শ্যামল কান্তি চাকমা সুমন্ত (৩০) স্থানীয় আদরি পেদা চাকমার ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, রামসুপারিপাড়া এলাকায় একটি বাড়িতে ইউপিডিএফ কর্মী শ্যামল চাকমা ও আকর্ষন চাকমা ঘুমাচ্ছিলেন। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ১৫ থেকে ২০ জনের একদল দুর্বৃত্ত খুব কাছ থেকে ব্রাশফায়ার করে তাদের মৃত্যু নিশ্চিত করে চলে যায়। তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা নিশ্চিতভাবে বলতে পারেননি স্থানীয়রা।

নানিয়ারচর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রওশন জামান জানান, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে রওনা দিয়েছে। দুর্গম এলাকা হওয়ায় পুলিশ সদস্যদের ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে দেরি হতে পারে। তারা সেখান ফিরলে বিস্তারিত তথ্য জানানো যাবে।

ইউপিডিএফের প্রচার বিভাগের প্রধান নিরন চাকমা বলেন, কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সে বিষয়ে এখনই কিছু বলতে পারছেন না তারা।

তবে সংগঠনটির একাধিক নেতা বলেছেন, এ হত্যাকাণ্ডের জন্য তারা পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকেই (এমএন লারমা) সন্দেহ করছেন।

আকর্ষণ চাকমা ও শ্যামল কান্তি চাকমা এক সময় জনসংহতি সমিতির ওই সংস্কারপন্থি অংশে থাকলেও কয়েক মাস আগে দলত্যাগ করে ইউপিডিএফে যোগ দেন। রামসুপারি পাড়া এলাকায় তারা সংগঠনের ‘কালেক্টর’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তারা

অভিযোগের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) মুখপাত্র প্রশান্ত চাকমা বলেন, এর সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। এটা ইউপিডিএফের অভ্যন্তরীণ কোন্দল হতে পারে।

উল্লেখ্য, গত ৩ মে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও এমএন লারমা গ্রুপের জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শক্তিমান চাকমাকে দুর্বৃত্তরা ব্রাশফায়ারে হত্যা করে। পর দিন ৪ মে শক্তিমানের শেষকৃত্যে যোগ দিতে যাওয়ার সময় বেতছড়ি এলাকায় দুর্বৃত্তদের ব্রাশফায়ারে গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মাসহ পাঁচজন নিহত হন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.