যাত্রা শুরু হলো রংপুর ও গাজীপুর মহানগর পুলিশের

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম
আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু হলো রংপুর ও গাজীপুর মহানগর পুলিশের। দুই মহানগরের বাসিন্দাদের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নির্বিঘ্ন রাখতে কাজ করবে এ দুইটি ইউনিট। আজ রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুর ও গাজীপুর মহানগর পুলিশের উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হলো পুলিশের এ দুইটি ইউনিটের। আটটি থানা নিয়ে গাজীপুর ও ছয়টি থানা নিয়ে গঠিত হয়েছে রংপুর মহানগর পুলিশ।

রংপুর মহানগর পুলিশের (আরপিএমপি) বর্তমান আয়তন ৫১৭ দশমিক ৩ বর্গ কিলোমিটার। রংপুর সদর, মিঠাপুকুর, বদরগঞ্জ, কাউনিয়া ও পীরগাছার কিছু অংশ আরপিএমপি এলাকায় থাকছে। আরপিএমপি এলাকার থানাগুলো হচ্ছে- কোতোয়ালি, পরশুরাম, তাজহাট, মাহিগঞ্জ, হারাগাছ ও হাজীরহাট।

আর গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) কার্যক্রমও চলবে আটটি থানা নিয়ে। এ থানাগুলো হলো- গাজীপুর সদর, কাশিমপুর, কোনাবাড়ি, বাসন, গাছা, পূবাইল, টঙ্গী পূর্ব ও টঙ্গী পশ্চিম।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা সবচেয়ে বেশি কষ্ট করেন। এজন্য সরকার পুলিশ বাহিনীর উন্নয়ন ও সুবিধার জন্য বিভিন্ন কর্মকাণ্ড হাতে নিয়েছে।

বিএনপি জামাতের আন্দোলনের সময় ২৭ জন পুলিশ সদস্য প্রাণ দিয়েছেন উল্লেখ করে তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন শেখ হাসিনা। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় পুলিশ বাহিনীর ভূমিকার কথাও স্মরণ করেন।

পুলিশ বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ও সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রংপুর ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের যাত্রা শুরু হলে এই দুই অঞ্চলের মানুষের নিরাপত্তা বাড়বে এবং অর্থনৈতিক উন্নয়ন তরান্বিত হবে। তিনি বলেন, দেশকে সামনে নিয়ে যেতে চাই। বাংলাদেশ কারো কাছে হাত পেতে চলবে না, নিজের পায়ে দাঁড়াবে, মর্যাদা নিয়ে এগিয়ে যাবে।

গণভবন প্রান্তে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন। এরপর রংপুর পুলিশ লাইন ও গাজীপুর পুলিশ লাইন মাঠ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন প্রান্তে সংযুক্ত হন স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.