খালেদা জিয়াকে দেখতে কারাগারে মেডিকেল বোর্ডের পাঁচ সদস্য

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেখতে কারাগারে প্রবেশ করেছেন মেডিকেল বোর্ডের পাঁচ সদস্য। আজ শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বেলা ৩টা ৪০ মিনিটে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারের ফটক দিয়ে তাদেরকে ভেতরে প্রবেশ করেন তারা।

পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের প্রধান হলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল জলিল চৌধুরী। অন্য সদস্যরা হলেন- অধ্যাপক হারিসুল হক (কার্ডিওলজি), অধ্যাপক আবু জাফর চৌধুরী (অর্থোপেডিক সার্জারি), সহযোগী অধ্যাপক তারেক রেজা আলী (চক্ষু) ও সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ (ফিজিক্যাল মেডিসিন)। গতকাল বৃহস্পতিবার পাঁচ সদস্যের এই মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

এই চিকিৎসক দলের খালেদাকে দেখতে সকাল ১১টার সময় যাওয়ার কথা থাকলেও বিএনপি চেয়ারপারসনের অনুমতি না মেলায় তারা ভেতরে যেতে পারেননি বলে জানিয়েছেন বোর্ডের প্রধান অধাপক আবদুল জলিল।

বেলা ২টার দিকে তিনি বলেন, আমরা আইজি প্রিজনের দপ্তরে আছি। খালেদা জিয়ার সঙ্গে আমরা দেখা করার অনুমতি চাইলে তিনি অনুমতি দেননি। এজন্য আমরা দেখা করতে পারিনি।

সরকারের পছন্দ অনুযায়ী প্রতিবেদন তৈরির পরিকল্পনা থেকে অনুগত ও পছন্দের লোকদের দিয়ে মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে অভিযোগ তুলে বিএনপির পক্ষ থেকে এই বোর্ডে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্তির দাবি জানানো হয়েছে।

গত ৯ সেপ্টেম্বর বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে দেখা করে খালেদা জিয়ার পছন্দ অনুযায়ী রাজধানীর কোনো বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর অনুরোধ জানায়। এরপরই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সংবাদ সম্মেলনে জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় মেডিকেল বোর্ড হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসনকে পুরনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়ার পর থেকে তিনি অন্য কোনো মামলায় অসুস্থতার কারণে আর হাজিরা দিকে পারেননি। এজন্য জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচারে কারাগারের ভেতরে আদালত বসে। গত সাত মাসেরও বেশি সময় ধরে পরিত্যক্ত এই কারাগারেই একমাত্র বন্দি হিসেবে রয়েছেন তিনি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.