আমরাও কোটা সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজছি: কাদের

ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ
কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘ধমক দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের দাবি আদায় হবে না। কোটা আন্দোলনকারীদের আমি একটা সুখবর দিতে চাই। আমরাও সমাধানের পথ খুঁজছি। একটি ব্যালেন্স সিস্টেম চালু করার জন্য কিছুটা সময় লাগছে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) মিলনায়তনে আজ রোববার বিকেলে শোক দিবসের আলোচনার আয়োজন করে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ)। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, কিছুদিন ধৈর্য ধরতে অসুবিধা কী? কোটা সংস্কারের তথ্য, উপাত্ত সংগ্রহের জন্য কিছুটা সময় লাগছে। এটি এখন অনেক দূর এগিয়েছে। আমরাও সমাধানের পথ খুঁজছি। ছাত্রছাত্রীদের হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই।’

তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রাখুন। কিশোর-কিশোরী, ছাত্রছাত্রী তাদের নয় দফা দাবি সরকার মেনে নিয়েছে। আজও একটি আন্ডারপাসের উদ্বোধন হয়েছে। সড়ক পরিবহন আইন পাসের পথে। অধৈর্য হবেন না, অপেক্ষা করুন। সমাধান হবে।’

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ আজ রোববার সকালে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে মানববন্ধন করে। কোটা সংস্কার আন্দোলন ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন থেকে সরকারকে ‘আলটিমেটাম’ দেয় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের এই সংগঠন।

মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর কন্যা। আলটিমেটাম দিয়ে শেখ হাসিনার কাছ থেকে সুবিধা আদায় করা যাবে না।’

১৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৫ আগস্টে জন্মদিন না পালন করে খালেদা জিয়ার জন্য বিএনপি দোয়া মাহফিল আয়োজন করেছে। এর অর্থ কি এটা যে ১৫ আগস্ট খালেদা জিয়ার ভুয়া জন্ম দিবস? ক্ষমা চেয়ে, দুঃখ প্রকাশ করে এটি থেকে বিএনপি সরে আসছে?

তিনি আরো বলেন, জন্ম দিবস ১৫ আগস্ট পালন করবেন না। ভুয়া জন্ম দিবস পালন থেকে বিএনপি মোটেই সরছে না। ১৫ আগস্টে যারা ভুয়া জন্ম দিবস পালন করে, বাংলাদেশে এই ‘ছদ্মবেশী বিধ্বংসী’ দলের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কর্মের সম্পর্ক থাকার সুযোগ নেই। খালেদা জিয়ার পাঁচটি জন্ম দিন। কোনটি সঠিক, এটি বিএনপিকে আগে পরিষ্কার করতে হবে। তারপর ভেবে দেখা যাবে বিএনপির সঙ্গে কথা বলা যায় কি না?

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, দিনক্ষণ দিয়ে ইতিহাসে কোনো দিন কোনো আন্দোলন হয়নি। বাংলাদেশেও হয়নি। দিনক্ষণ দিয়ে যে আন্দোলন হয় না, গত নয় বছরে বিএনপির দিনক্ষণের আন্দোলনের ব্যর্থতাই তার বড় প্রমাণ।

স্বাচিপের মহাসচিব ইকবাল আর্সলানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আ ফ ম রুহুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, বিএসএমএমইউয়ের উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া, স্বাচিপের মহাসচিব মো. আবদুল আজিজ প্রমুখ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.