শহীদ বুদ্ধিজীবী সেলিনা পারভীনের ছেলের মরদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম
একাত্তরে শহীদ বুদ্ধিজীবী সাংবাদিক সেলিনা পারভীনের ছেলে সুমন জাহিদের (৫২) দ্বিখণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর খিলগাঁও বাগিচা এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সুরতহালের জন্য তার মরদেহ ডিআরপি (রেলওয়ে পুলিশ) থানা, কমলাপুরে রাখা হয়েছে।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) বলেন, সুমন জাহিদ নামে একজনের মরদেহ উদ্ধার হওয়ার খবর জেনেছি। আমরা শুনেছি, তিনি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাক্ষী ছিলেন। তবে রেলওয়ে এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার হওয়ায় বিষয়টি রেল পুলিশ দেখভাল করছে। এ বিষয়ে আমরা কিছু বলতে পারছি না।

শহীদ সাংবাদিক সিরাজুদ্দিনের ছেলে তৌহিদ রেজা নূর বলেন, আমরা মনে করছি, সুমন জাহিদের মৃত্যু কোনোভাবেই দুর্ঘটনা বা আত্মহত্যা নয়। মানবতাবিরোধী অপরাধে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ডের অন্যতম হোতা চৌধুরী মাঈনুদ্দীনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছিলেন সুমন জাহিদ। এদিকে, কয়েকদিন আগে মুন্সীগঞ্জের প্রকাশক, ব্লগার, লেখক শাজাহান বাচ্চুকে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে। এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে সোচ্চার ছিলেন সুমনও। শাজাহান বাচ্চুকে হত্যার মধ্য দিয়ে মুক্তমনা মানুষদের বিরুদ্ধে হত্যার যে ধারা শুরু হয়, এই ঘটনাও তারই ধারাবাহিকতা।

তৌহিদ রেজা নূর আরো বলেন, বলা হচ্ছে, সুমন জাহিদ আত্মহত্যা করেছেন কিংবা দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। কিন্তু আমরা সবাই অনেক কষ্টের মধ্য দিয়ে বড় হয়েছি। মানসিকভাবে আমরা অনেক শক্ত। আমরা মনে করি না, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তাছাড়া তিনি মোটরসাইকেল চালাতেন। তিনি অনেক সাবধানী ছিলেন। দুর্ঘটনা হলে তার মরদেহ এভাবে পাওয়া যেত না। আমরা কোনোভাবেই তার মৃত্যুর এই ঘটনাকে দুর্ঘটনা বলেও মেনে নিতে রাজি না।

সুমন জাহিদ থাকতেন উত্তর শাজাহানপুরে। তার গ্রামের বাড়ি ফেনী। সুমন জাহিদের স্ত্রীর নাম টুইসি। তাদের সংসারে আছে দুই সন্তান। সুমন জাহিদের বাবার নাম জাহাঙ্গীর খণ্ডলী।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.