দিনাজপুরে বয়লার বিস্ফোরণ: মৃতের সংখ্যা বেড়ে চার

রংপুর সংবাদদাতা, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

0

দিনাজপুরে রাইস মিলে বয়লার বিস্ফোরণে আরো একজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর নাম  রোস্তম আলী (৪৫)। আজ শুক্রবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো এক নারীসহ চারজন। হাসপাতালে আরো চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৫ জন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

হাসপাতালে ভর্তি দগ্ধরা হলেন, রনজিত (৫০), মুকুল মিয়া (৪৫), মনু মিয়া (৩২), শফিকুল ইসলাম (১৯), উদয় চন্দ্র (২২), দুলাল মিয়া (৩৫), সাইদুল ইসলাম (৪০), বীরেন্দ্র (৫০), মাজেদুল ইসলাম (৩৬), শরিফুল ইসলাম (৪৫), এনামুল হক (৪৫), দেলোয়ার হোসেন (৫০), বাদল মিয়া (৩৬), আনিছুল হক (৪৪) এবং  মনরঞ্জন শীল(৩৭)। এদের মধ্যে ১২ জনের শরীর গরম পানিতে ঝলসে গেছে।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের প্রধান ডা. মারুফুল ইসলাম জানান, দিনাজপুরে বয়লার বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ রোস্তম আলী শুক্রবার সকালে মারা যান। তিনি আরো জানান, এর আগে বুধবার ওই ঘটনায় রঞ্জিতা রাণী রায় (৪০) ও মোকছেন আলী (৫০) মারা যান। বৃহস্পতিবার মারা যান আরিফুল ইসলাম (৩০)।

ডা. মারুফুল ইসলাম জানান, দগ্ধ ১৬ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁদের শরীর ৫০ থেকে ৯০ ভাগ পুড়ে গেছে।

বুধবার দুপুরে  দিনাজপুর সদর উপজেলার  চেহেলগাজী ইউনিয়নের শেখহাটি গোপালগঞ্জে যমুনা অটো রাইস মিলে ভয়াবহ বয়লার বিস্ফোরণে কর্মরত ৩০ জন শ্রমিক দগ্ধ হন। বিস্ফোরণের পর পর দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে দগ্ধদের উদ্ধার করে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। পরে এদের ১৮ জনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী দগ্ধ মুকুল মিয়ার ভাই আতা মিয়া বলেন, দূর থেকে আমরা বিস্ফোরণের বিকট শব্দ পাই। এর পরে জানতে পাই বয়লার বিস্ফোরণ হয়েছে। দ্রুত সেখানে গিয়ে দেখি নারী-পুরুষ পড়ে আছেন আর বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করছে।

সম্পাদনা : অরুন দাস।

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPrint this page