চট্টগ্রামে ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে দুটি বাড়িতে অভিযানে পুলিশ

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

0

মিরসরাই ও সীতাকুণ্ডের পর এবার জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে চট্টগ্রাম নগরীর আকবর শাহ থানার কর্নেল হাট সিডিএল আবাসিক এলাকায় দুটি বাড়ি ঘিরে রেখে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। আজ সোমবার (২০ মার্চ) বিকাল ৪টার দিকে নগরীর সিডিএ এক নম্বর রোডে একটি এবং উত্তর কাট্টলীর ঈষান মহাজন লেনের কালীবাড়ি এলাকায় আরেকটি একটি ভবনে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের পশ্চিম জোনের উপ-কমিশনার ফারুকুল ইসলাম জানান, জঙ্গিনিরোধ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে দুইটি ভবনে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

সিডিএ এক নম্বর রোডের মম নিবাস নামের চারতলা ভবনটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। সেখানে তল্লাশি চালানোর কথা জানান ডবলমুরিং জোনের সহকারী কমিশনার এ বি এম ফয়েজুল ইসলাম।

এদিকে, এক কিলোমিটারের মধ্যে উত্তর কাট্টলী এলাকার অন্য বাড়িটিও ঘিরে রাখা হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দুই দিকের দুটি বাড়িতে এই অভিযান চলছে।

আকবর শাহ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত (ওসি) মো. আলমগীর জানান, বাড়ি দুটির একটি আকবর শাহ সিডিএ আবাসিক এলাকার এক নম্বর সড়কে, অপরটি ইশান মহাজন সড়কে অবস্থিত। বাড়ি দুটিতে অভিযানের জন্য সোয়াত, র‌্যাব, কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা ও বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলসহ পুলিশের দেড়শরও বেশি সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছেন।

উৎসুক জনতারও ভিড় রয়েছে ওই বাড়ি দুটির সামনে।

গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে দুইটি বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। এর মধ্যে বুধবার সাধন কুঠির নামে ওই বাড়ি থেকে আটক হন স্বামী-স্ত্রী পরিচয়দানকারী দুইজন। আর পরদিন ছায়ানীড় ভবনে অভিযান চলাকালে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ এবং পুলিশের গুলিতে নিহত হয় পাঁচজন। পরে আস্তানাটি থেকে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক এবং বোমা তৈরির কাঁচামাল উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে ৭ মার্চ জেলার মিরসরাইয়ে সন্দেহভাজন আরো একটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকেও উদ্ধার করা হয় বিপুল পরিমাণ বোমা, গ্রেনেড এবং বিস্ফোরক। এই আস্তানায় পাওয়া গ্রেনেডগুলোর সঙ্গে ২০১৬ সালের ৩০ জুলাই ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারীরা যেসব গ্রেনেড ব্যবহার করেছিলো তাঁর হুবহু মিল পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সম্পাদনা : অরুন দাস।

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPrint this page