ইসির ম্যাপ দেখতে পেলেও রোড দেখতে পায়নি বিএনপি: হাছান

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

0
১৭ জুলাই ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি মিলনায়তনে স্বাধীনতা পরিষদ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে শেখ হাসিনার কারাবন্ধি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: নাছির উদ্দিন, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করে কানাগলিতে হারিয়ে গেছে। তাই তারা নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ম্যাপ দেখতে পেলেও রোড দেখতে পায়নি। সোমবার (১৭ জুলাই) সকালে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি মিলনায়তনে স্বাধীনতা পরিষদ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্ধি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ না করলে চিরতরে হারিয়ে যাবে। আর তাদের নেতা-কর্মীরাও কানাগলিতে ঘুরপাক খেয়ে-খেয়ে হতাশার অতল গহব্বরে তলিয়ে যাবে।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত রোডম্যাপ অত্যন্ত বাস্তব সম্মত ও সময়োপযোগী। কেননা, নির্বাচন কমিশন এ রোডম্যাপ আরো দেরিতে ঘোষণা করলে তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হতো না। আগামি নির্বাচন বর্জন না করে নির্বাচন কমিশনকে সার্বিকভাবে সহায়তা করার জন্যও বিএনপির প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডন সফরে তাঁর ছেলে তারেক রহমানের সঙ্গে আবেগঘন পরিবেশের কথা উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, খালেদা জিয়া লন্ডনে তারেক রহমানের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন। কিন্তু বিএনপির আন্দোলনের নামে পেট্রলবোমা মেরে দেশের নিরীহ মানুষকে যখন পুড়িয়ে মারা হয়েছিলো তখন তাঁকে কাঁদতে দেখা যায়নি।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া শুধু তাঁর বাড়ি আর পুত্রের জন্য কান্না করেন। দেশের মানুষের জন্য তিনি কখনো কান্না করেন না। সেজন্য তিনি দেশের জনগণের নেত্রী হওয়ার যোগ্যতা হারিয়েছেন।

বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান বলেন, লন্ডনে গিয়ে নির্বাচন নিয়ে ষড়যন্ত্র করে কোনো লাভ হবে না। কারণ, আগামিতেও দেশের মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেই নির্বাচিত করবে।

সংগঠনের উপদেষ্টা এবং সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, কুমিল্লা (উত্তর) জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ আউয়াল সরকার, আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান আলম সাজু ও হাসিবুর রহমান মানিক।

সম্পাদনা: রাজু আহমেদ।

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPrint this page