আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

0

ঢাকার বনানীতে দুই ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদের বাবা আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। মুদ্রা পাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের দুই মামলায় হাইকোর্টের দেয়া জামিনের মেয়াদ শেষে নিয়ম অনুযায়ী আদালতে হাজির না হওয়ায় আজ সোমবার ঢাকার মহানগর হাকিম নূর নবী এ আদেশ দেন।

আদালত শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরকে ওই আদেশ কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে বলে জানান অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মইনুল খান। তিনি বলেন, আমরা আদালতের আদেশ বাস্তবায়নে যা করা প্রয়োজন তার সবটুকু করবো।

এর আগে রোববার আপনের অপর দুই মালিক দিলদারের ভাই গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদের বিরুদ্ধেও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন মহানগর হাকিম নূরুন্নাহার ইয়াসমিন।

বনানীর হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গত মে মাসে দিলদারের ছেলে সাফাতের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার পর তার পরিবারের মালিকানাধীন আপন জুয়েলার্সের সোনা চোরাচালানের অভিযোগের বিষয়ে তদন্তে নামে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর। ওই মাসের শেষ দিকে আপনের বিভিন্ন বিক্রয় কেন্দ্র থেকে ১৫.৩ মণ সোনা এবং সাত হাজার ৩৬৯টি হীরার অলঙ্কার জব্দ করে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পাঠায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

শুল্ক ফাঁকি রোধে দায়িত্বরত এ সংস্থার ভাষ্য, মজুদ ওই গয়নার কোনো বৈধ কাগজপত্র আপন কর্তৃপক্ষ দেখাতে পারেনি। অনুসন্ধান শেষে গত ১২ আগস্ট দিলদার ও তার দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে মুদ্রা পাচারসহ বিভিন্ন অভিযোগে রাজধানীর গুলশান, ধানমণ্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় পাঁচটি মামলা করে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, চোরাচালানের মাধ্যমে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে স্বর্ণালঙ্কার এনে এর অর্থ অবৈধভাবে বিদেশে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি অবৈধভাবে অর্জিত সম্পদের সঠিক পরিমাণ তারা আয়কর বিবরণীতে উল্লেখ করেনি। এ দুই মামলায় ২২ আগস্ট হাই কোর্টের একটি বেঞ্চ থেকে চার সপ্তাহের আগাম জামিন পান আপনের মালিক তিন ভাই। ওই জামিনের মেয়াদ শেষে আরও এক মাস পেরিয়ে গেলেও আসামিরা নিয়ম অনুযায়ী নিম্ন আদালতে হাজির না হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে সময়ের আবেদন করায় দুই বিচারক তা নাকচ করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

সম্পাদনা : সূর্য দাস।

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPrint this page