আজ জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, পিটিবিনিউজ.কম। ওয়েবসাইট: www.ptbnewsbd.com

0

জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে বিএনপি। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার ২১ আগস্টের অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে নিয়ে যেসব বক্তব্য দিয়েছেন, সেই প্রেক্ষাপটেই এ সংবাদ সম্মেলন।

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে নিলেও সেই সংশোধনী বাতিলের মাধ্যমে সামরিক শাসনের সময় সংবিধানে আসা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের বিধান ফিরিয়ে আনার রায় দিয়েছে আপিল বিভাগ। রায়ের পর্যবেক্ষণে প্রধান বিচারপতি সিনহা বাংলাদেশের রাজনীতি, সামরিক শাসন,নির্বাচন কমিশন,দুর্নীতি,সুশাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেছেন। চলতি মাসের শুরুতে সেই রায় প্রকাশের পর থেকে দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে পক্ষে-বিপক্ষে আলোচনা।

রায়ের পর্যবেক্ষণে ‘বঙ্গবন্ধুকে কটাক্ষ ও অবমূল্যায়ন করা হয়েছে’ অভিযোগ তুলে আওয়ামী লীগ নেতারা প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার কড়া সমালোচনা করলেও বিএনপি ওই রায়কে বলছে ‘ঐতিহাসিক’।

২১ আগস্ট উপলক্ষে সোমবার আওয়ামী লীগের আলোচনাসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রথমবারের মত ওই রায় নিয়ে প্রকাশ্যে কথা বলেন। তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হচ্ছে পার্লামেন্টের মেম্বার দ্বারা। সংসদ সদস্যরাই রাষ্ট্রপতিকে নির্বাচন করেন। আর সেই রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দেন প্রধান বিচারপতিকে। ওই রাষ্ট্রপতি দ্বারা নির্বাচিত হয়ে, ওই চেয়ারে বসে নিজের নিয়োগের কথা ভুলে গেলেন?… এই কথাগুলো বলার আগে উনার (প্রধান বিচারপতি) ওই পদ থেকে সরে যাওয়া উচিত ছিলো।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এটা সম্পূর্ণ অসাংবিধানিক কথা, অশোভন কথা এবং সকল আইন-কানুন-শিষ্ঠাচার বর্হিভূত কথা।

আলাল বলেন, নিজের মধ্যে বার বার প্রশ্নের উদ্রেক হয়– আমরা কি আসলে একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক, নাকি স্বাধীন আওয়ামী লীগের দ্বারা শাসিত একটা দেশ? শুধু তারা স্বাধীন? অন্য কেউ নয়?

সম্পাদনা : অরুন দাস।

Share on FacebookShare on Google+Tweet about this on TwitterPrint this page